দুয়ারে ত্রাণ প্রকল্প | Duare Tran scheme in West Bengal | Duare Tran prakalpa

‘ইয়াস’-এর ক্ষতিপূরণও বাড়ি বাড়ি পৌঁছে দেওয়ার পরিকল্পনা নিয়েছে রাজ্য সরকার। তার জন্য ‘দুয়ারে ত্রাণ’ শিবির খোলা হবে। সেখান থেকে আবেদনপত্র সংগ্রহ করতে পারবেন ক্ষতিগ্রস্তরা। সব কিছু খতিয়ে দেখে আগামী ১ জুলাই থেকে ৭ জুলাইয়ের মধ্যে সকলের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে ক্ষতিপূরণের টাকা জমা করে দেবে রাজ্য সরকার। এর আগে, আমপানের সময় ত্রাণের টাকা নিয়ে ব্যাপক দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছিল তৃণমূলের নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে। এ বার তাই ত্রাণের বিষয়টি সরকারই তদারকি করছে।

অতি শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় ‘যশ’-এর (Cyclone Yaas) তাণ্ডবে রাজ্যে যে ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে, তা পুনর্গঠনের জন্য ‘দুয়ারে ত্রাণ’ নামে নতুন প্রকল্প ঘোষণা করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (CM Mamata Banerjee)। এর জন্য প্রাথমিকভাবে ১হাজার কোটি টাকা অর্থ বরাদ্দ করার কথাও জানিয়েছিলেন তিনি। সেই টাকায় ক্ষতিপূরণ, পুনর্গঠনের কাজ দ্রুতই শুরু করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। শুক্রবার দুর্যোগ কবলিত এলাকায় ঘুরে প্রশাসনিক বৈঠকে তার খুঁটিনাটি জানান তিনি।আর এবার ‘দুয়ারে ত্রাণ’ প্রকল্পের বিজ্ঞপ্তি জারি করে রাজ্য সরকার জানিয়ে দিল,

কোন খাতে কত আর্থিক সাহায্য মিলবে –

• ফসল নষ্ট হলে সে ক্ষেত্রে ১০০০ টাকা থেকে সর্বোচ্চ ২৫০০ টাকা ক্ষতিপূরণ মিলবে
• ঘূর্ণিঝড়ে যে সমস্ত ঘরবাড়ি ভেঙে গিয়েছে সেই সমস্ত ঘর বাড়ির জন্য পরিবার পিছু ২০ হাজার টাকা করে দেওয়া হবে, ঘরবাড়ি আংশিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হলে ৫০০০ টাকা মিলবে
• ঘূর্ণিঝড়ের জেরে গবাদি পশুর মৃত্যু হলে গরু বা মহিষ পিছু ৩০ হাজার টাকা করে ক্ষতিপূরণ মিলবে। ভেড়া ছাগল পশু মারা গেলে সে ক্ষেত্রে মিলবে ৩ হাজার টাকা, মালপত্র বহনের জন্য চাষের কাজে ব্যবহৃত ষাঁড় মারা গেলে ২৫ হাজার টাকা মিলবে। বাছুরের মৃত্যু হলে ১৬ হাজার টাকা মিলবে।
• পানের বরজের ক্ষতি হলে ৫ হাজার টাকা মিলবে
• মত্‍স্যচাষীরা নতুন হাঁড়ি কেনার জন্য ৩০০ টাকা পাবেন। মাছ ধরার জালের জন্য পাবেন ২ হাজার ৬০০ টাকা। নৌকা ক্ষতিগ্রস্ত হলে তাদেরকে ১০ হাজার টাকা করে দেওয়া হবে। আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত হলে ৫ হাজার টাকা মিলবে
• হস্তশিল্পীদের যন্ত্রপাতি কিনতে মাথাপিছু ৪ হাজার ১০০ টাকা করে দেওয়া হবে। কাঁচামাল কিনতেও মাথাপিছু ৪ হাজার ১০০ টাকা করে পাবেন। গুদামঘর, দোকান বা মজুত রাখার জায়গা ক্ষতিগ্রস্ত হলে ইউনিট প্রতি ১০ হাজার টাকা করে দেওয়া হবে

কীভাবে মিলবে ক্ষতিপূরণের –

মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেএবার ত্রাণবণ্টন, ক্ষতিপূরণ দেওয়ার কাজ এবার সরকারি আধিকারিকদের হাতেই ছেড়েছেন তিনি।

আগামী ৩ জুন থেকে ১৮ জুন – এই ১৫ দিন ক্ষতিপূরণ পাওয়ার জন্য আবেদনপত্র জমা দিতে হবে।

১৯ থেকে ৩০ জুন পর্যন্ত সেসব আবেদনপত্র খুঁটিয়ে দেখা হবে।

এরপর ১ থেকে ৮ জুলাইয়ের মধ্যে সরাসরি ক্ষতিগ্রস্তদের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে টাকা পৌঁছে যাবে।

দুয়ারের ত্রাণ প্রকল্পে কিভাবে আবেদন করবেন ফর্ম ডাউনলোড করুন Click here

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*