Bina Mulya Samajik Suraksha Yojana (BM-SSY) Online apply

Being out of the purview of most labour laws, unorganised sector workers, comprising approximately 93% of the working population of the state, have traditionally been one of the most vulnerable sections of the society. To alleviate their plight, the state government has, from time to time, launched a number of social security schemes like State Assisted Scheme of Provident Fund, Welfare Schemes for Building and Other Construction Workers and Social Security Schemes for Transport workers.However, there have been non uniformity in the benefits across the schemes, resulting in occupation based disparities across workmen.

To mitigate such anomalies, a project was undertaken with the objective of integrating the different schemes and to offer uniform benefits to all unorganised workmen so as to help them face every exigency of life. Thus, was born – SAMAJIK SURAKSHA YOJANA (SSY)- 2017, the first of its kind in the country- to cover every eligible unorganised worker as per the approved list of unorganised industries (46) and self-employed occupations (15) notified by the Labour Department, Government of West Bengal from time to time along with construction and transport workers.

To assist the enrolled beneficiaries further, the state government has decided to waive off the beneficiary contribution of Rs 25/- a month towards subscription payment for provident funds and has decided to contribute the amount itself on behalf of the beneficiaries from 1st April 2020. Thus the scheme was renamed as Bina Mulya Samajik Suraksha Yojana (BM-SSY) where any enrolled beneficiary can avail all the available benefits without expending a single rupee.

অসংগঠিত শ্রমিকদের উন্নতি প্রকল্প পশ্চিমবঙ্গ সরকার পরিচালিত কিছু সামাজিক সুরক্ষা প্রকল্প আছে যেমন – a. ভবিষ্যনিধি প্রকল্প, b. স্বাস্থ্য সুরক্ষা প্রকল্প, c. নির্মাণ কর্মীদের জন্য সুরক্ষা প্রকল্প, d. পরিবহন কর্মীদের জন্য সুরক্ষা প্রকল্প ও e.বিড়ি শ্রমিক কল্যাণ প্রকল্প |

এই প্রকল্প গুলি থেকে যে অনুদান দেওয়া হয় সেগুলির পরিমাণ এবং তা পাওয়ার মাপকাঠি এক একটি প্রকল্পের এক এক রকমের। অনুদানের ধরন গুলিও আবার সব প্রকল্পে সামঞ্জস্যপূর্ণ নয়। স্বশিক্ষিত শ্রমিকদের পক্ষে এটি অনেক ক্ষেত্রে বিভ্রান্তি ও অসুবিধার সৃষ্টি করে। তাই প্রকল্পগুলি শ্রমিকের কাছে সহজ ও বোধগম্য করে তোলার জন্য, এগুলিকে একত্র করে একটি মাত্র প্রকল্পে পরিণত করে, সকল শ্রমিকের সুবিধা দেওয়ার উদ্দেশ্য নিয়ে 01.04.2017 থেকে সামাজিক সুরক্ষা যোজনা 2017 পশ্চিমবঙ্গে চালু করা হলো।

বিনামূল্যে সামাজিক সুরক্ষা যোজনা কি কি সুবিধা পাওয়া যাবে –

প্রভিডেন্ট ফান্ড :-

সামাজিক সুরক্ষা যোজনায় নথিভুক্ত উপভোক্তার আরো একটি বড় সুবিধা হলো প্রভিডেন্ট ফান্ডের সুবিধা। আগে 30 টাকা প্রতি মাসে জমা করতে হতো সরকার সেই ফান্ডে 30 টাকা জমা করতেন। বর্তমানে এই 25 টাকা জমা করতে হয় না ( ১লা এপ্রিল 2020, 25 টাকা সরকার দিয়ে দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছে ) সেই জন্য এই প্রকল্পের আরো একটি নাম দেওয়া হয়েছে “বিনামূল্যে সামাজিক সুরক্ষা যোজনা” [ প্রতিমাসে প্রভিডেন্ট ফান্ডে 55 টাকা করে সরকার জমা দিতে থাকবে ]

থেকে প্রভিডেন্ট ফান্ডের এই জমা টাকা 60 বছর বয়স পূর্ণ হলে উপভোক্তা ফেরত পাবে সুদে-আসলে | যোজনা চলাকালীন মাঝপথে উপভোক্তার মৃত্যু হলে তাড়না মিনিং এই টাকা ফেরত পাবেন সরকারের কাছ থেকে |

মেয়াদ পূর্ণ হলে উপভোক্তা পাবেন 2’লক্ষ 50 হাজার টাকারও বেশি

  1. মৃত্যু :- A. দুর্ঘটনার কারণে মৃত্যু হলে দু লক্ষ টাকা প্রদান, B. স্বাভাবিক মৃত্যু হলে 50 হাজার টাকা প্রদান |
  2. শারীরিক অসমর্থতা :- A. উপভোক্তা ন্যূনতম 40% শারীরিক অসমর্থতা থাকলে 50 হাজার টাকা প্রদান, B. উপভোক্তা দুর্ঘটনাজনিত কারণে দুটি চোখের দৃষ্টিশক্তি হারালে, দুটি হাতের কর্মক্ষমতা অথবা দুটি পায়ে চলার শক্তি হারালে দু লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে, C. উপভোক্তার দুর্ঘটনাজনিত কারণে একটি চোখের দৃষ্টিশক্তি হারালে, একটি হাতের কর্মক্ষমতা অথবা একটি পায়ে চলার শক্তি হারালে এক লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে |
  3. শিক্ষা :- উপভোক্তার সর্বাধিক দুটি সন্তানের শিক্ষার জন্য নিম্নলিখিত হারে আর্থিক সহায়তা প্রদান করা হবে- A. উপভোক্তার দুটি কন্যা সন্তান এর স্নাতক পর্যন্ত পড়াশোনা শেষ করার জন্য প্রত্যেককে 25 হাজার টাকা আর্থিক সহযোগিতা প্রদান করা হবে, B. এই সুবিধা কন্যাদের পড়াশুনা শেষ হওয়া পর্যন্ত অবিবাহিত থাকলে তবেই প্রদান করা হবে |
  4. পুত্র-কন্যা শিক্ষার জন্য :-

দক্ষতা বিকাশ প্রশিক্ষণ :-

উপভোক্তা এবং অথবা তার পরিবারের সদস্যদের বিভিন্ন ব্যবসা-বাণিজ্য এবং বৃত্তিমূলক প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে, যাতে তারা বিকল্প অর্থনৈতিক কাজ-কারবার মূলত নিযুক্তিতে সামর্থ্য হয় সমর্থ হয় | পশ্চিমবঙ্গ সোসাইটি ফর স্কিল ডেভেলপমেন্ট থেকে নিখরচায় তারা এই প্রশিক্ষণ পেতে পারবেন |

আবেদনের শর্ত :-

  1. সদস্য হতে ইচ্ছুক আবেদনকারীকে অসংগঠিত শ্রমিককে পশ্চিমবঙ্গের স্থায়ী বাসিন্দা হতে হবে
  2. বয়স 18 থেকে 60 বছরের মধ্যে হতে হবে
  3. পারিবারিক উপার্জন 6500 টাকার বেশি হওয়া চলবে না

আবেদন পত্রের সাথে কি কি নথিপত্র জমা দিতে হবে :-

  1. আবেদনকারীর- ভোটার কার্ড, আধার কার্ড, ব্যাংক একাউন্টের জেরক্স কপি, পাসপোর্ট সাইজ ছবি (3), লেবার কার্ড যদি থাকে তার জেরক্স
  2. নমিনির– ভোটার কার্ড, আধার কার্ড, ব্যাংক একাউন্ট বইয়ের জেরক্স
  3. পরিবারের অন্যান্য সদস্যের – বয়সের প্রমাণপত্র – ভোটার কার্ড / আধার কার্ড / জন্ম সার্টিফিকেট / এডমিট কার্ড

অনলাইন আবেদনের লিংক Click Here

New Registration -এ ক্লিক করুন
  1. আপনার সমস্ত তথ্য এন্ট্রি করে রেজিস্ট্রেশন পেজ ফিলাপ করুন।
  2. রেজিস্ট্রেশন কমপ্লিট হয়ে গেলে আপনার মোবাইল নাম্বারে ইউজার আইডি এবং পাসওয়ার্ড পাঠানো হবে।
  3. এরপরে হোমপেজে “User Login” ক্লিক করুন আপনার মোবাইলে পাওয়া ইউজার আইডি এবং পাসওয়ার্ড দিয়ে লগইন করুন |

মোবাইলে পাওয়া ইউজার আইডি এবং পাসওয়ার্ড এন্ট্রি করে লগইন-এ ক্লিক করলে আপনার প্রফাইল পেজ ওপেন হবে।

প্রফাইল পেজ ওপেন হওয়ার পর আপডেট CAF [ Update CAF ] -এ ক্লিক করুন |

পরপর স্টেপ গুলি আপনাকে ফিলাপ করে এগিয়ে যেতে হবে –

  1. প্রথমে আপনার বেসিক ডিটেইলস ফিলাপ করতে হবে
  2. তার পরের পেজে এড্রেস ডিটেলস ফিলাপ করবেন
  3. তারপর আপনার ব্যাংকের বিবরণ এন্ট্রি করবেন
  4. তারপর যাকে আপনি নমিনি রাখতে চাইছেন তার ডিটেলস ফিলাপ করতে হবে
  5. আপনার উপর নির্ভরশীল যে সমস্ত ব্যক্তিরা রয়েছে আপনার পরিবারে তাদের প্রত্যেকের ডিটেইলস ফিলাপ করবেন
  6. এরপরে ডকুমেন্টস আপলোড করতে হবে [ পাসপোর্ট সাইজ ছবি, সহি, ভোটার কার্ড, আধার কার্ড এবং ব্যাংকের বই আপলোড করতে হবে ]
  7. ডকুমেন্ট আপলোড হয়ে গেলে ফাইনাল রিভিউ দেখতে পাবেন

ফাইনাল সাবমিট করার আগে Form-1 ডাউনলোড করবেন এবং সেটাকে আপনার পঞ্চায়েত প্রধান অথবা মিউনিসিপালিটি চেয়ারম্যান, এমএলএ, এমপি দ্বারা সই করবেন এবং নির্দিষ্ট জায়গায় আপনি সই করবেন, তারপর সেটিকে স্ক্যান করে আপলোড করতে হবে।

আবেদন পত্র এবং সমস্ত ডকুমেন্ট আপনার BDO অফিসে অথবা আপনার পঞ্চায়েতে জমা দেবেন |

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*